স্বামী সন্তান হারা অসহায় রিনা বেগমের স্বপ্ন পূরণ করলো সাদ্দাম অনন্ত

0
302
নতুন ঘরের সামনে রিনা বেগম ও সাদ্দাম হোসেন অনন্ত

মোশারফ হোসাইন তযু-নিজস্ব প্রতিবেদক: স্বামী সন্তান হারা, সহায় সম্বলহীন, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী রিনা বেগম (৫৫) মানুষের বাড়ীর বারান্দা কিংবা রান্নাঘরে থেকে ভিক্ষা করে জীবন চালায়।

৩০ বছরেরও রিনা বেগমের ভাগ্যে জোটেনি বিধবা ভাতা বা সরকারী ঘর। স্বামী এবং একমাত্র ছেলেকে হারিয়েছেন অনেক আগেই। অসহায় এই নারীর করুণ জীবনকাহিনী শুনে ব্যক্তিগত উদ্যোগে একটি থাকার ঘর ও ছোট একটি রান্নার ঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন ব্যবসায়ী সাদ্দাম হোসেন অনন্ত। থাকার ঘরে বিদ্যুৎ, নতুন খাট, বিছানার চাদর, বালিশসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের ব্যবস্থাও করে দিয়েছেন তিনি। অবশেষে রিনা বেগমের স্বপ্নও পূরণ হলো।

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার ৩ নং তারাটি ইউনিয়নের তারাটি চরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা রিনা বেগম থাকার নতুন ঘর পেয়ে অনেক আনন্দিত।  তিনি জানান, আমার একটা স্বপ্ন ছিলো, একটা ঘর থাকবে। অহন ঘর পাইছি, শীত বাদলায় ম্যালা কষ্ট করছি, ভালা কইরা ঘুমাইবার পারিনাই, চেয়ারম্যান, মেম্বারগরে অনেক কইছি, কেউ আমারে কিছু দেয়নাই। অহন ঘর পাইছি, থাহার আর চিন্তা নাই, ঘরে আরামে ঘুমাইমু।

স্থানীয়রা জানান, রিনা বেগমের মতো অসহায় মহিলা আমাদের এলাকায় আর একটিও নেই। চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের অনেক জানিয়েছি তাকে একটা কার্ড করে দিতে, কিন্তু তারা দেয়নি। সরকার গরীবকে অনেক কিছুই দিচ্ছে। কিন্তু যারা পাবার যোগ্য তাদের অনেকেই তা পাচ্ছে না।

গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সাদ্দাম হোসেন অনন্ত জানান, নিতান্ত মানবিক কারণেই অসহায় এই মহিলাকে থাকার ঘর নির্মাণ করে দিয়েছি। বিত্তবানদের সমাজের যেকোনো অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here