শ্রীপুরে এক সেতুর জন্য তিন উপজেলার মানুষ চরম দূর্ভোগে !

0
178
বরমীর পেলাইদ এলাকায় উড়িয়াদী খালের ভেঙ্গে যাওয়া সেতু

মোশারফ হোসাইন তযু

গাজীপুরের শ্রীপুরে বরমীর পেলাইদ এলাকায় উড়িয়াদী খালের সেতু ভেঙ্গে যাওয়ায় চরম দূর্ভোগে পড়েছে শ্রীপুর, কাপাসিয়া ও গফরগাঁও উপজেলার হাজার হাজার মানুষ।

সেতুটি সংস্কারের অভাবে বরমীর সাথে যোগাযোগ রক্ষাকারী কয়েকটি সড়ক দীর্ঘদিন ধরে যান চলাচলে অযোগ্য  থাকায় বিকল্প সড়ক হিসেবে শ্রীপুর থেকে গোসিঙ্গা-পেলাইদ হয়ে বরমীসহ আশপাশের কয়েকটি উপজেলার লোক যাতায়াত করত। গত ৪ নভেম্বর এই সড়কের উপর নির্মিত ৪০ফুট দীর্ঘ সেতুটি ভেঙ্গে পরায় যাত্রীদের দুর্ভোগ এখন চরমে। ঢাকার সাথে কিশোরগঞ্জ সহ ময়মনসিংহের বিভিন্ন এলাকার যোগাযোগ সহজতর করার লক্ষ্যে বতর্মান সরকারের আমলে শ্রীপুরের বরামা এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীর উপর বীর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী সেতু নির্মান করা হয়। বরমীর প্রধান কয়েকটি সড়ক সংস্কারের অভাবে যানচলাচলের অনুপযুক্ত থাকায় কয়েকটি উপজেলার মানুষ শ্রীপুর-গোসিংগা-পেলাইদ সড়ক ব্যবহার করে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে সংযুক্ত হত। গত দেড় মাস আগে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে উড়িয়াদি খালের সেতুটি ভেঙ্গে পড়ায় এখন জনদূর্ভোগের সৃষ্টি হচ্ছে। আর এতে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, গার্মেন্টসের শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা।

বরমী ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ড সদস্য আলী আজমত জানান, দীর্ঘদিন সংষ্কারের অভাবে শ্রীপুর-বরমী সড়কটি কয়েক বছর বন্ধ রয়েছে। ফলে পার্শ্ববর্তী কয়েকটি উপজেলার কয়েক হাজার মানুষ বিকল্প বরমী-পেলাইদ-গোসিঙ্গা-শ্রীপুর সড়ক ব্যবহার করে আসছেন। ফলে ওই সড়কে যানবাহনের চাপ বেড়েগিয়েছিল। অপরদিকে স্থানীয়দের বাঁধা সত্ত্বেও এ সড়ক দিয়ে কয়েকমাস যাবত ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত মাল বহনকারী কয়েক’শ বালু বহনকারী ড্রাম্প ট্রাক দিন রাত চলাচল করে আসছে। যানবাহনের অতিরিক্ত চাপে উড়িয়াদী খালের উপর নির্মিত ব্রিজটি ভেঙ্গে পরে।

বরমী বাজারের ব্যবসায়ী গণেশ ভান্ডারের মালিক রিপন সাহা জানান, বরমী বাজারের কয়েক হাজার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। বরমীর অন্যান্য সড়ক যানচলাচলের অনুপযুক্ত থাকায় দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে মালামাল পরিবহনের সর্বশেষ ব্যবস্থা ছিল গোষিঙ্গা-পেলাইদ-বরমী সড়কটি।কিন্তু তা ভেঙ্গে পরায় এখন ৩০ কিলোমিটার ঘুরে চলতে হচ্ছে। এতে পরিবহন খরচ ও অতিরিক্ত খরচ হচ্ছে।

শ্রীপুর উপজেলা প্রকৌশলী সুজায়েত হোসেন বলেন, অতিরিক্ত চাপে পুরাতন এ ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ায় জনদূর্ভোগ লাগবে খুব দ্রুততম সময়ে ব্রিজ নির্মানের প্রাথমিক আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়েছে। আশা করা হচ্ছে আগামী মাসেই দরপত্র আহবান করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here