প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

0
441

বিভিন্ন জাতীয় , স্থানীয় ও অনলাইন পত্রিকায় গত ১৪ মে ২০১৮ ইংরেজী তারিখে শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের “শ্রীপুরের সরকারি জমিতে প্রকাশ্যে বহুতল ভবন গড়ে উঠছে” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। নিউজগুলো আমার দৃষ্টিগোছর হয়েছে। প্রকাশিত ওই সংবাদগুলোতে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আমাকে জড়ানো হয়েছে।

উক্ত প্রকাশিত সংবাদগুলোর প্রসঙ্গে আমার বক্তব্য হল আমার নাম ডা: খালেদ মোহাম্মদ ইকবাল আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ব বিদ্যালয়ের হৃদরোগ বিভাগের রেসিডেন্ট ডাক্তার হিসেবে কর্মরত আছি। মূলত: গাজীপুর বাজারে এক নাম্বার খতিয়ানের আর এস ৪৭৫৫নং ও এসএ ১৩৪০ নং দাগের দেড় শতাংশ জমি পঞ্চাশ বছর ধরে আমার বাবা গাজীপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইসমাঈল হোসেন ভোগদখল করে আসছে।

২০১০ সালে বাবার মৃত্যুর পর আমি এই যায়গা সরকারিভাবে লিজ নিয়ে নিয়মিত খাজনা পরিশোধ করে আসছি । প্রকাশিত নিউজে আমার বিরুদ্ধে গাজীপুর নীজ মাওনা নতুন বাজারে মসজিদের নামে ওয়াকফকৃত জমির উপর কবর দখলের অভিযোগ আনা হয়েছে। মূলত: ১৯৮৫ সালে ৫২ শতাংশ জমি আমার বাবা স্থানীয় আব্দুল মজিদের কাছ থেকে ক্রয় করে ভোগদখল করে আসছে। আমাদের ক্রয়কৃত জমির উপর কোন কবর নেই। নিউজে আমাকে ভূমিদস্যু, অসহায় নারী পুরুষদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে মাসের পর মাস জেলে রেখে বসতভিটা জবরদখলের অভিযোগ আনা হয়েছে এসবের সাথে আমার বিদুমাত্রও স্পৃক্ততা নেই। আমার বাবা ইসমাঈল হোসেন স্বর্ণ পদক প্রাপ্ত ও বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন।

১৯৮৪ সাল থেকে ১৯৯৫সাল পর্যন্ত সুনামের সহিত গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সারাজীবন মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন। ইউনিয়ন পরিষদ, হাসপাতালসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য দান করে গেছেন বহু জমি। আমিও সুনামের সহিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ব বিদ্যালয়ের হৃদরোগ বিভাগের রেসিডেন্ট ডাক্তার হিসেবে কর্মরত আছি। আমাদের সামাজিক মর্যাদা ক্ষুন্ন করার জন্য স্থানীয় একটি কুচক্রীমহল আমার সম্পর্কে বানোয়াট ও ভিত্তিহীন তথ্য সরবরাহ করেছন। মূলত স্বার্থন্বেষী একটি মহল এলাকায় আমাকে হেয় করে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে আমার সম্মানেরহানী করা হয়েছে প্রকাশিত সংবাদের আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি।

প্রতিবাদকারী :
ডা: খালেদ মোহাম্মদ ইকবাল
গাজীপুর, মাওনা, শ্রীপুর,গাজীপুর।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here